টিপস

অ্যামাজন থেকে আয় করার উপায়

আজকের পোস্টটি তাদের জন্য যারা কিনা অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে চাই। অনলাইন ইনকামের জন্য অনেক ইনকাম সোর্স রয়েছে এজন্য অনেক ধরনের কাজ সম্পর্কে জানার প্রয়োজন হয়ে থাকে তবে সহজ একটি মাধ্যম হচ্ছে অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য সেটি কিনা অ্যামাজন এর উপর ভিত্তি করে করতে পারবেন। অ্যামাজন সম্পর্কে আমরা সকলে জানি অ্যামাজনের নাম জানেন না এমন ব্যক্তি খুব কম রয়েছে। আর অ্যামাজন থেকেই ইনকাম করা সম্ভব যেটি কিনা আপনি আপনার বাসায় বসে অ্যামাজনে কাজ করে খুব সহজে ইনকাম করতে পারেন। অ্যামাজনে কাজ করে কোটি টাকা ইনকাম করা সম্ভব এক্ষেত্রে আপনাকে এর কাজ সম্পর্কে জানতে হবে কাজটি খুব সহজ আবার অনেকের কাছেই কঠিন বলে মনে হতে থাকে এক্ষেত্রে আমরা অ্যামাজনের কিছু সহজ উপায় সম্পর্কে আপনার জানাবো যেগুলো জেনে আপনি অ্যামাজন থেকে ইনকাম করতে পারবেন ।

সুতরাং আপনারা যায় অ্যামাজন থেকে আয় করার উপায় সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে অনলাইনে অনুসন্ধান করে আমাদের ওয়েবসাইটে এসেছেন তারা অবশ্যই আমাদের সাথে থেকে অনলাইন ইনকাম করতে সক্ষম। এক্ষেত্রে অ্যামাজনে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকে আপনি খুব সহজেই আমাদের কথাগুলো বুঝতে পারবেন এবং সে অনুযায়ী কাজ করে খুব সহজেই অনেক টাকা ইনকাম করতে সক্ষম হবেন। আবার অনেকেই রয়েছেন যারা অন্যান্য উপায়ে ইনকাম করে থাকলেও অ্যামাজনে কাজ করেননি এমন ব্যক্তি গনের জন্য কিছুটা কঠিন হবে তবে অসম্ভব কিছু নয় আপনি চাইলেই অ্যামাজন থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

অ্যামাজন থেকে ইনকাম করার উপায়

অ্যামাজন থেকে ইনকাম করার বেশ কিছু উপায় রয়েছে এক্ষেত্রে আজকের আলোচনায় আমরা অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট এই বিষয়ে আপনাদের জানাব যেটি করে আপনি অনেক ইনকাম করতে সক্ষম হবেন। বর্তমান সময়ে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট করে কোটি কোটি টাকা ইনকাম করছেন। সত্যিই আমাজন এফিলিয়েট করে কোটি টাকা ইনকাম করা সম্ভব এক্ষেত্রে আপনাকে ধৈর্য ধারণ করতে হবে এবং অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট সম্পর্কিত বিষয়গুলো বিস্তারিত ভাবে জানতে হবে আপনাদের সাধারণভাবে অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট সম্পর্কে কিছু তথ্য প্রদান করা হবে যেগুলোর ভিত্তিতে যাত্রী অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কাজটি শুরু করতে পারবেন আশা করি বোঝাতে পেরেছি।

এফিলিয়েট কি

উপরে আমরা অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট কথাটি ব্যবহার করেছি যেটি মাধ্যমে ইনকাম করা সম্ভব এর জন্য আমাদের প্রথমে জানতে হবে এফিলিয়েট কি । আপনাকে বোঝানোর জন্য সহজ ভাষা ব্যবহার করার চেষ্টা করছি এপ্রিল হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া ধরুন আপনি একটি অ্যামাজন পণ্যের রিভিউ প্রদান করলেন সেটি এমন সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করলেন একটা টিপ করে তুললেন যে আপনার কথার উপর ভিত্তি করে পণ্যটি ক্রয় করল এক্ষেত্রে আপনার মাধ্যমে একজন ক্রেতা অ্যামাজনে তাদের একটি পণ্য ক্রয় করল এক্ষেত্রে সে প্রোডাক্ট এর উপর নির্দিষ্ট পরিমাণে কমিশন আপনাকে প্রদান করা হবে এটি মূলত এফিলিয়েট বলা হয়েছে ।

সুতরাং আপনার রিভিউ এর মাধ্যমে কোন একটি ক্রেতা অ্যামাজন থেকে কোন একটি পণ্য ক্রয় করলে সেটির পারসেন্টেন্স আপনার কাছে আসবে। এটিকে এফিলিয়েট বলা হয়েছে এক্ষেত্রে পারসেন্টেন্স নির্ধারণ করা হয়েছে তাই আপনি কোন একটি বড় অর্থাৎ বেশি দামের পণ্যের রিভিউ করলেন ধরুন আপনি একটি মোটরসাইকেল কিংবা অনেক বেশি দামের কোন একটি পণ্যের রিভিউ প্রদান করলেন যেটির পার্সেন্টেজ হবে অনেক বেশি এক্ষেত্রে আপনার ইনকাম তত বেশি হবে। আশা করছি অ্যাফিলিয়েটের বিষয় সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন।

 কিভাবে এফিলিয়েট করতে হয়

কিভাবে এফিলিয়েট করতে হয় এ বিষয়ে সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে আপনি আমার ওয়েবসাইটে এসেছেন এ বিষয়ে আমরা নিশ্চিত। এক্ষেত্রে এফিলিয়েটেড প্রথমেই আপনাকে একটি ওয়েবসাইট ক্রিয়েট করতে হবে যেখানে আপনি নিয়মিত বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট গুলো রিভিউ প্রদান করবেন। এক্ষেত্রে কোম্পানির বিভিন্ন ধরনের নিয়ম-নীতি রয়েছে সেই নিয়ম অনুসারে প্রোডাক্টের রিভিউ প্রদান করতে হবে । সেগুলোর প্রতি ভিত্তি করে যারা কোম্পানির কোন একটি প্রোডাক্ট কিনবেন তার পার্সেন্টেজ অনুযায়ী আপনাকে পেমেন্ট করা হবে ।

এক্ষেত্রে প্রোডাক্টের রিভিউ এর সাথে লিংক প্রদান করতে হবে সেই লিঙ্কে ক্লিক করে প্রডাক্ট মাধ্যমিক আপনি ইনকাম করতে পারবেন এক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর যত বেশি সে ক্ষেত্রে আপনার রিভিউ এর ভিত্তিতে সে ততো বেশি হবে এবং আপনি তত বেশি ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে মার্কেটিং এর জন্য আপনি ফেসবুক পেজ কিংবা ফেসবুক গ্রুপ সহ অন্যান্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কে আপনার পণ্যের রিভিউ গুলো প্রদান করতে পারেন এ ক্ষেত্রে অনেকেই আগ্রহী হয়ে সেই লিঙ্কে ক্লিক করে প্রোডাক্ট কিনতে পারেন এবং প্রোডাক্ট সেল হলেই আপনি কমিশন পাচ্ছেন।

Back to top button
Close