স্টাটাস

ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস ২০২২

আসসালামু আলাইকুম, আশা করি সকলেই ভাল আছেন আলহামদুলিল্লাহ আমরাও অনেক ভালো আছি। আজকে আমরা যে বিষয়টি নিয়ে কথা বলব সেটি হচ্ছে ইসলামিক পোস্ট অর্থাৎ আমরা সকলেই জানি বর্তমান সময়ে প্রায় সকলেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে থাকেন একেক জন একেক ধরনের স্ট্যাটাস পাবলিশ করে থাকেন। এদের মধ্যে অনেক মানুষ রয়েছে যারা ইসলামকে ভালোবাসে এবং ইসলামিক স্ট্যাটাস করে থাকেন। তো এই সকল মানুষের চাহিদার কথা চিন্তা করে তাদের সুবিধার্থে আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে কিছু ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে রাখবো।

স্ট্যাটাসের মাধ্যমে আপনার সম্পর্কে জানা বা বোঝানো যায়। অনেক সময় স্ট্যাটাস এর উপর ভিত্তি করে অনেকেই মনোভাব নির্ধারণ করে থাকে। এক্ষেত্রে আপনি যদি ইসলাম সম্পর্কে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন তাহলে আপনাকে একজন ইসলামিক মাইন্ডের মানুষ হিসেবে অনেকেই চিনে থাকবে।

যেহেতু ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে অনেক মানুষ অনলাইনে অনুসন্ধান করেন সে ক্ষেত্রে আমাদের আজকের এই পোস্টে আমরা ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস দেওয়ার মত কিংবা স্ট্যাটাস উপযুক্ত কিছু কথা আপনাদের সামনে তুলে ধরবো। আশা করি আমাদের দেওয়া ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস গুলো আপনাদের ভালো লাগবে। আমাদের পুরো পুষ্টির সাথে থাকবেন।

ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস

অনেকেই ফেসবুকে ইসলামিক স্ট্যাটাস দিতে গিয়ে কি লিখবেন বুঝতে পারে না এক্ষেত্রে একটি বিভ্রান্তিতে পড়তে হয়। মূলত এই সকল ব্যক্তিদের সহযোগিতার জন্য আমরা বেশ কিছু ইসলামিক ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে উপস্থিত হয়েছে যেগুলো এখানে তুলে ধরব। আমি আশা করি এই সকল স্ট্যাটাস আপনাদের ভালো লাগবে এবং ফেসবুকে ব্যবহার করতে পারবেন। নিচে ফেসবুক স্ট্যাটাস গুলো দেওয়া হল।

০১- আপনি সালাতের প্রতি উদাসীন। অথচ আপনার মৃত্যু দুই সালাতের মধ্যবর্তী যেকোন সময় হতে পারে।

“তোমরা কি মনে করো যে, (হিসাব-নিকাশ ছাড়াই) তোমাদেরকে এমনি ছেড়ে দেওয়া হবে?”
-সূরা কিয়ামাহ, আয়াত ৩৬

০৩- “আর তাদেরকে হত্যা কর যেখানে তাদেরকে পাও এবং তাদেরকে বের করে দাও যেখান থেকে তারা তোমাদেরকে বের করেছিল। আর ফিতনা হত্যার চেয়ে কঠিনতর এবং তোমরা মাসজিদুল হারামের নিকট তাদের বিরুদ্ধে লড়াই করো না, যতক্ষণ না তারা তোমাদের বিরুদ্ধে সেখানে লড়াই করে। অতঃপর তারা যদি তোমাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে, তবে তাদেরকে হত্যা কর। এটাই কাফিরদের প্রতিদান।”

০৪- “তবে যদি তারা বিরত হয়, তবে নিশ্চয় আল্লাহ ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।”
|সূরা আল-বাকারাহ, ২ঃ১৯১-১৯২|

০৫- আর তোমরা নিজদের মধ্যে তোমাদের সম্পদ অন্যায়ভাবে খেয়ো না এবং তা বিচারকদেরকে (ঘুষ হিসেবে) প্রদান করো না। যাতে মানুষের সম্পদের কোন অংশ পাপের মাধ্যমে জেনে বুঝে খেয়ে ফেলতে পার।
|সূরা আল-বাকারাহ, ২ঃ১৮৮|

  • আমরা যারা নির্জনে, সুযোগ পেলেই গুনাহে লিপ্ত হই। যারা ইন্টারনেটের অবাধ দুনিয়ায় কোন রকম বাছবিচার না করে বিচরণ করি।
  • হে আমার রব্ব! আপনি আমাকে মাফ করুন এবং তাওবাহ কবুল করুন; নিশ্চয় আপনিই তওবা কবুলকারী ক্ষমাশীল।
  • ” মৃত্যু থেকে বাঁচা অসম্ভব ;
    কিন্তু, জাহান্নাম থেকে বাঁচা সম্ভব।

ভয় পেও না আমি তোমাদের সাথেই আছি,

আমি সব শুনি এবং দেখি।

– আল-কুরআন।

– সর্বোত্তম জিকির হলো ।

– লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ

– সহিহ বুখারী [৩৩৮৩]

মিথ্যা হতে দূরে থাক কেননা

মিথ্যা চেহারাকে কালো করে দেয়।

– হযরত মুহাম্মদ (সা:)

আল্লাহর জন্য নিজেকে পরিবর্তন করো।

– দেখবে খারাপ সময়গুলো ও আল্লাহর।

পক্ষ হতে রহমত মনে হবে।

– যখন বান্দার জ্বর হয়,

তখন গুনাহ গুলো ঝড়ে পড়তে থাকে।

– হযরত মুহাম্মদ(সাঃ)

– দেহের রোগের ঔষধ ফার্মেসিতে থাকলেও।

– মনের রোগের ঔষধ আল কোরআনে আছে।

তোমারা শুক্রবারকে ভয় করো।

কারণ কোনো এক শুক্রবারে কিয়ামত হবে।

-হযরত মুহাম্মদ(সাঃ)

Back to top button
Close