Skip to content

কি করলে জীবন সুখী হবে

কি করলে জীবন সুখী হবে

প্রিয় ভিউয়ার্স আজকে আমরা আপনাদের মাঝে নতুন একটি পোস্ট তুলে ধরবো আমরা আজকে আমাদের এই পোস্টে এমন কিছু উপায় আপনাদের মাঝে তুলে ধরবো যে উপায় গুলোর মাধ্যমে মানবজীবন সুখী হবে। আপনারা অনেকেই জানতে চান কি করলে জীবন সুখী হবে সেই সম্পর্কে আমরা আজকে আপনাদের মাঝে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। আমাদের আজকের এই আলোচনা থেকে আপনারা বুঝতে পারবেন মানব জীবন সুখী হওয়ার উপায় সমূহ। আপনি আমাদের আজকের এই পোস্ট থেকে জীবন সুখী হওয়ার উপায় সংগ্রহ করে সেই অনুযায়ী জীবন পরিচালনা করলে আপনার জীবন সুখের হবেই হবে। আশা করি আমাদের আজকের এই পোস্ট টি আপনাদের জীবনে কাজে লাগবে।

জীবন একটাই। জীবনে রয়েছে সুখ-দুঃখ ও হাসি আনন্দ সব কিছুর সমান মিশ্রন। জীবনে সুখ দুঃখ আসে পালা  বদল করে। জীবন কখনো কখনো ভেসে যায় সুখের ভেলায় আবার কখনো কখনো ডুবে যায় দুঃখের সাগরে। জীবনের সুখ দুঃখ সব কিছুই জীবনের সাথে ওতপ্রভাবে জড়িয়ে আছে। জীবনটা ছোট হলেও জীবনের পরিধি টা অত্যন্ত ব্যাপক। জীবনের এই পরিধি অনেকেই জীবনকে বিষিয়ে তুলে। সবাই শুধু জীবনে সুখী হতে চায় কিন্তু কিন্তু জীবনে সুখী হওয়ার জন্য যা করণীয় সে উপায় সমূহ সম্পর্কে অনেকেই সঠিক ভাবে জানতে চায়না। তাই আমাদের সকলের জানতে হবে জীবনের সুখী হওয়ার উপায় সমূহ। জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সংগ্রহ করে আমাদের জীবন সেভাবে পরিচালনা করতে হবে তাহলে আমরা যেমন প্রকৃতপক্ষে সুখী হতে পারব।

কি করলে জীবন সুখী হবে

সবাই শুধু জীবনের সুখী হতে চায় কিন্তু অনেকেই জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সম্পর্কে সুস্পষ্টভাবে জানেনা। তাইতো আমি আজকে আমাদের এই পোস্টে তুলে ধরবো জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সমূহ। আমাদের আজকের এই পোস্ট থেকে আপনারা জীবনে সুখী হওয়ার উপায় সমূহ সংগ্রহ করে আপনার পরিচালনা করলে আপনি জীবনে সুখী হতে পারবেন। আমাদের আজকের এই পোস্টটি আপনি আপনার পরিবার পরিজন ও বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিতে পারবেন। আপনি আমাদের আজকের এই পোস্টটি সোশ্যাল মিডিয়ায় মোটিভেশনাল পোস্ট হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। নিচে জীবনে সুখী হওয়ার উপায় গুলো তুলে ধরা হলো:

* প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটুন৷

* নির্জন কোন স্থানে একাকী অন্তত ১০ মিনিট সময় কাটান ও নিজেকে নিয়ে ভাবুন৷

* ঘুম থেকে উঠেই প্রকৃতির নির্মল পরিবেশে থাকার চেষ্টা করুন। সারাদিনের করণীয় কাজ নিয়ে মন স্থির করুন।

* নির্ভরযোগ্য প্রাকৃতিক উপাদানে ঘরে তৈরি খাবার খাওয়া এবং প্রক্রিয়াজাত খাবার কম খাওয়ার অভ্যাস করুন।

* সবুজ চা এবং পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

* প্রতিদিন অন্তত তিনজনের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করুন।

* গালগপ্প, অতীতের স্মৃতি, বাজে চিন্তা করে আপনার মূল্যবান সময় এবং শক্তি অপচয় করবেন না। ভাল কাজে সময় ও শক্তি ব্যয় করুন।

* সকালের নাস্তা রাজার মত, দুপুরের খাবার প্রজার মত এবং রাতের খাবার খাবেন ভিক্ষুকের মত।

* জীবন সবসময় সমান যায় না, তবুও ভাল কিছুর অপেক্ষা করতে শিখুন।

* অন্যকে ঘৃণা করে সময় নষ্ট করার জন্য জীবন খুব ছোট, সকলকে ক্ষমা করে দিন সব কিছুর জন্য।

* কঠিন করে কোন বিষয় ভাববেন না। সকল বিষয়ের সহজ সমাধান চিন্তা করুন।

* সব তর্কে জিততে হবে এমন নয়, তবে মতামত হিসাবে মেনে নিতে পারেন আবার নাও মেনে নিতে পারেন।

* আপনার অতীতকে শান্তভাবে চিন্তা করুন, ভূলগুলো শুধরে নিন। অতীতের জন্য বর্তমানকে নষ্ট করবেন না।

* অন্যের জীবনের সাথে নিজের জীবন তুলনা করবেন না।

* কেউ আপনার সুখের দায়িত্ব নিয়ে বসে নেই। আপনার কাজই আপনাকে সুখ এনে দেবে।

* প্রতি ৫ বছরমেয়াদি পরিকল্পনা করুন এবং ওই সময়ের মধ্যেই তা বাস্তবায়ন করুন।

* গরীবকে সাহায্য করুন। দাতা হোন, গ্রহীতা নয়।

* অন্য লোক আপনাকে কি ভাবছে তা নিয়ে মাথা ঘামানোর দরকার নেই বরং আপনি আপনাকে নিয়ে কি ভাবছেন সেটা মূল্যায়ন করুন ও সঠিক কাজটি করুন।

* কষ্ট পুষে রাখবেন না। কারণ সময়ের স্রোতে সব কষ্ট ভেসে যায়। তাই কষ্টের ব্যাপারে খোলামেলা আলাপ করুন ও ঘনিষ্ঠদের সাথে শেয়ার করুন।

* মনে রাখবেন সময় যতই ভাল বা খারাপ হোক তা বদলাবেই।

* অসুস্থ হলে আপনার ব্যবসা বা চাকরি অন্য কেউ দেখভাল করবে না। করবে বন্ধু কিংবা নিকটাত্মীয়রা, তাদের সাথে সম্পর্ক বজায় রাখুন।

* প্রতি রাতে ঘুমানোর আগে আপনার জীবনের জন্য বাবা মাকে মনে মনে ধন্যবাদ দিন।

* মনে রাখুন জীবনের কোন ভুলের জন্য আপনি ক্ষমা পেয়েছেন। সেসব ভুল আর যেন না হয় তার জন্য সতর্ক থাকুন।

* সবসময় ন্যয়ের পক্ষে কথা বলুন। আদর্শে জীবন চলে না, কিন্তু আপনি আদর্শ অনুসরণ না করলে জীবনে শান্তি পাবেন না।

সুখী হওয়ার ১০ টি উপায়

১। অলস মস্তিস্ক শয়তানের কারখানা

২। অন্যকে বদলানোর চেষ্টা না করে নিজেকে বদলে ফেলুন

৩। দুঃখ কে সামলাতে শিখুন, দুঃখে দুমড়ে মোচড়ে যাবেন না

৪। দুঃখ থেকে শিক্ষা গ্রহন করুন আর নিজেকে মজবুত করে তুলুন

৫। দৃষ্টিভঙ্গি বদলে ফেলুন

৬। দুঃখ কে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করুন

৭। দুঃখ থেকে সুখের জন্ম দিন

৮। সৃষ্টিকর্তার ওপর বিশ্বাস রাখুন

৯। যে কোন অবস্থাতে নিজেকে ভালবাসুন

১০। কিছুক্ষণের জন্য হলেও একা থেকে আত্ম-বিশ্লেষণ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: