Skip to content

ঘন দাড়ি গজাবার উপায়| শেভ করলে কি দাড়ি বেশি বা ঘন হয়

ঘন দাড়ি গজানোর উপায়

ঘন দাড়ি গজানোর উপায়। কিভাবে দাড়ি ঘন গজাবে এই বিষয়ে অনেকেই অনলাইনে অনুসন্ধান করে থাকেন তাই আজকের এই পোস্ট। ইতিমধ্যেই আজকের পোস্টের বিষয় সম্পর্কে আপনারা জানতে পেরেছেন সুতরাং আপনি যদি এই দাড়ি গজানোর উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে চান তাহলে পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। আশা করি আপনারা জানতে পারবেন এই বিষয়ে বিস্তারিত সকল তথ্য। বর্তমান সময়ে অনেকের কম বয়সে দাড়ি গজায়। আবার অনেকের বয়সের তুলনায় অনেক পরে দাড়ি গজিয়ে থাকেন। কখনো কখনো কারো দাড়ি খুবই পাতলা হয়ে থাকে এ ক্ষেত্রে তারা চিন্তিত। তাই তারা কিভাবে দাড়ি ঘন করবে এই বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাই।

সুতরাং আপনি যদি এখান থেকে দাড়ি গজানোর উপায় গুলো সম্পর্কে জানতে চান অথবা শেভ করলে কি দাড়ি বেশি ঘন বসে থাকে এ প্রশ্নের উত্তর চান তাহলে পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। হয়তো এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনি জেনে যাবেন দাড়ি সংক্রান্ত সকল তথ্য নিয়ে। কিভাবে দাড়ি ঘর করবেন এবং সেভ করলে দাড়ি গজাবে কিনা এই বিষয়ে।

ঘন দাড়ি গজানোর উপায়

দাড়ি গজানোর ক্ষেত্রে কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো অনুসরণ করলে হয়তো একটু বেশি ঘন দাড়ি গজিয়ে থাকে । সুতরাং আপনার যদি দাড়ি ঘন করার প্রয়োজন হয়ে থাকে তাহলে এখান থেকে জেনে নিতে পারেন এই সকল উপায়।

দাড়ি ছাঁটুন

প্রথম দিকে অল্প দাড়ি বেরোলে কাটার জন্য ছটফট করবেন না।

চলতি ধারণা আছে, বার বার দাড়ি কাটলে নাকি দাড়ি ঘন হয়। কারো কারো ক্ষেত্রে এটা ঘটে থাকে তবে এর কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। শুরুর দিকে দাড়ি যতটা বাড়ে, বাড়তে দিন। ১ মাস থেকে দেড় মাস পরে ছাঁটুন অর্থাৎ ট্রিম করে নিন, ব্লেড কখনোই ব্যবহার করবেন না এর জন্য।

মুখেরযত্ননিন

মুখের যত্ন নিন। ভাল করে ঘষে ত্বকের উপর থেকে মৃত কোষ দূর করার চেষ্টা করুন। এর ফলে নতুন দাড়ি গজানোর প্রক্রিয়া তাড়াতাড়ি হবে। চেষ্টা করুন মুখের চামড়া পরিষ্কার রাখতে। অন্তত সকালে ও সন্ধ্যায় এক বার করে গরম জলে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন। ক্লিনজিং মিল্ক ব্যবহার করলে আরও ভাল। এর ফলে ছোট ছোট দাড়িগুলো বেরতে সুবিধে হবে।

আমলকির তেল

আমলকি আমাদের চুলের জন্য খুবই উপকারী। তাই আমলকির তেল দ্রুত দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট আমলকীর তেল দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করুন। এরপর ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ইউক্যালিপটাস

ইউক্যালিপটাস দাড়ি বড় করতে সাহায্য করে। সেই জন্য ইউক্যালিপটাস দেওয়া আছে, এই রকম ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে দ্রুত দাড়ি গজাবে।

দাড়ি ভালো গজাবে যে ৯ উপায়ে

উপরে দেওয়া তথ্য বেতিত আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা দাড়ি গজাবে যে 9 টি উপায় সেই উপায় গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আশা করি, উপরোক্ত তথ্যের পাশাপাশি এই সকল বিষয়ে জ্ঞান অর্জন করলে আপনি উপকৃত হতে পারেন। এই উপায়গুলি আমরা নিচে দিয়ে রাখছি আপনারা দেখে নিতে পারেন।

১. আমলকীর তেল দ্রুত দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। ১৫ থেকে ২০ মিনিট আমলকীর তেল দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করুন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২. দিনে দুবার মৃদু ক্লিনজার দিয়ে মুখ ধুতে হবে। মুখ ধোয়ার সময় হালকা গরম পানি ব্যবহার করুন। পরিষ্কার ত্বক দাড়ির বৃদ্ধিকে বাড়িয়ে দেবে।

৩. ইউক্যালিপটাস দাড়ি বড় করতে সাহায্য করে। ইউক্যালিপটাস সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার দিয়ে ত্বক ম্যাসাজ করুন।

৪. দাড়ি ভালোভাবে এবং দ্রুত গজানোর জন্য কিন্তু ভালোভাবে ঘুম হওয়া জরুরি। এটি ক্ষতিগ্রস্ত কোষকে পুনর্গঠনে সাহায্য করে।

৫. কিছু ভিটামিন এবং মিনারেল দ্রুত দাড়ি গজাতে সাহায্য করে। খাদ্যতালিকায় ভিটামিন এ, ভিটামিন ই, ভিটামিন সি এবং ভিটামিন ই-সমৃদ্ধ খাবার রাখুন।

৬. প্রতিদিন ২ দশমিক ৫ মিলিগ্রাম বায়োটিন সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করুন। এটি চুল গজাতে কাজে দেবে। তবে যেকোনো ওষুধ গ্রহণের আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৭. মানসিক চাপ কম থাকলে দাড়ি দ্রুত গজায়। তাই ধ্যান করে বা যোগব্যায়াম করে মানসিক চাপ কমানোর চেষ্টা করুন।

৮. প্রোটিন-সমৃদ্ধ খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন। মাছ, মাংস, ডিম বাদাম ইত্যাদি খান। এতে দাড়ি দ্রুত গজাবে।

৯. মুখের ম্যাসাজ রক্তের চলাচলকে বাড়ায়। এটি চুল গজাতে সাহায্য করে। তাই প্রায়ই মুখে ম্যাসাজ করুন। এ ছাড়া ছয় মাস পরপর দাড়ি ট্রিমিং করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: