Skip to content

মেয়েদেরকে হাসানোর উপায়| মেয়েদের মন জয় করার উপায়

মেয়েদেরকে হাসানোর উপায়

মেয়েদেরকে হাসানোর উপায় সম্পর্কে জানার জন্য যারা অনলাইনে এসেছেন তারা এখান থেকে এই উপায় গুলি সম্পর্কে জানতে পারবেন। অনেকেই রয়েছেন যারা মেয়েদেরকে হাসাতে চাই তাদের জন্য খুবই সহজে একটি পোস্ট এটি। কিছু বিষয় রয়েছে যেগুলো নিয়ে কথা বলে আপনি মেয়ে সহ যে কোন মানুষকে বিনোদন দিতে পারবেন। অনেকেই চায় মজার মানুষ হিসেবে অন্যের কাছে নিজেকে উপস্থাপন করতেন। এ কারণেই অনলাইনে আসেন মজার বা মানুষকে হাসানোর উপায় সম্পর্কে জানার জন্য। এই উদ্দেশ্য নিয়ে অনলাইনে এসে থাকলে আপনি এখান থেকে উপায় সম্পর্কে জানতে পারবেন।

মানুষকে হাসানো বা বিনোদন দেওয়া খুব কঠিন কাজ নয়। শুধুমাত্র কথা বলার ধরণ জানলেই আপনি কথার মধ্য দিয়ে মানুষকে বিনোদন দিতে পারবে। সুতরাং যারা এই পদ্ধতিগুলো জানেন না তারা এখান থেকে সকল পদ্ধতি জেনে নেবেন। এতে করে আপনি মানুষকে খুব সহজে হাসাতে পারবেন।

মেয়েদেরকে হাসানোর উপায়

আপনি কি যে কোন মেয়েকে হাসাতে যান এর জন্য আপনাকে কিছু পদ্ধতি এবং কথা শব্দ জানতে হবে। যেগুলো অবলম্বন করে আপনি হাসাতে পারবেন। কথার মধ্যে মজা পেলে মেয়েরা আপনার সাথে কথা বলার আগ্রহ দেখাবে কথা বলতে চাইবে। সুতরাং যারা মেয়েদের সাথে দীর্ঘ সময় কথা বলতে চান তারা অবশ্য এখান থেকে এসব পদ্ধতি গুলো জেনে নেবেন। এবং এগুলো সঠিকভাবে প্রয়োগ করলে আপনি দীর্ঘ সময় মেয়েদের সাথে কথা বলতে পারবেন। নিচে মেয়েদেরকে হাসানোর উপায় দাওয়া হয়েছে।

মেয়েদের হাসানোর মেসেজ কালেকশান

 

(হ্যাঁ/না) দিয়ে নিচের শূন্যস্থান পুরণ কর।
— আমি মানুষ না।
— আমি ফাজিল।
— আমার মতো পাগল আর নাই।
— আমি বেকুব।
—আমি গাধা।

ছাএঃদুই মণ=৮০ কেজি*
স্যার তার মানে কি?
ছাএঃমেয়ের ১মণ=৪০কেজি
ছেলের ১মণ=৪০কেজি
(৪০+৪০)=৮০কেজি
স্যারঃ অবাক …….

অদ্ভুত কিছু আবেগ,
অজানা কিছু অনুভূতি।
অসম্ভব কিছু ভালো লাগা,
হয়তো বা কষ্টের ভয়,
একাকীত্ব নিরবতা।
এই নিয়ে আমাদের
টয়লেটে বসে থাকা।

দু হাত বাড়িয়ে আকাশ পানে চাও,
নিজেকে পাখি মনে হবে।
জোছনা রাতে চাঁদের পানে চাও,
নিজেকে পরি মনে হবে।
মাটির সবুজ ঘাসের পানে চাও,
নিজেকে ছাগল মনে হবে।

যখন তোমার একা লাগবে,
তুমি চারদিকে কিছুই দেখতে পাবে না,
দুনিয়া টা ঝাপসা হয়ে আসবে।
তখন তুমি আমার কাছে এসো।
তোমাকে চোখের ডাক্তার দেখাবো।

তুমি আসবে বলেই ,
আকাশ মেঘলা বৃষ্টি এখনো হয় নি
তুমি আসবে বলেই ,
কৃষ্ণচূড়ার ফুলগুলো ঝড়ে যায়নি।
তুমি আসবে বলেই ,
অন্ধ কানাই বসে আছে গান গায়নি
তুমি আসবে বলেই ,
চৌরাস্তার পুলিশটা ঘুষ খায়নি।

এইযে ভাইয়েরা শুনছেন,
কুকুরের বাচ্চারা,
শুয়োরের বাচ্চারা,
বানরের বাচ্চারা,
গাধার বাচ্চারা,
বিড়ালের বাচ্চারা,
শেয়ালের বাচ্চারা যদি কামরায়

এক বছর পর দেখলাম,
তারপর ধরলাম,
ভালো লাগল একটু টিপলাম,
নরম লাগল তারপর একটু
চুষে দিলাম মজা লাগল।
তাইতো বলি বছরের প্রথম
পাকা আমের স্বাদ-ই আলাদা

ফুলের মাঝে ভ্রমর আসে,
নদীর ওপর নৌকা ভাসে,
শিশির নাচে সবুজ ঘাসে,
রাতের মাঝে জোছনা হাসে।

তুমি চারদিকে কিছুই দেখতে পাবে না,
দুনিয়া টা ঝাপসা হয়ে আসবে।
তখন তুমি আমার কাছে এসো।
তোমাকে চোখের ডাক্তার দেখাবো।

দু হাত বাড়িয়ে আকাশ পানে চাও,
নিজেকে পাখি মনে হবে।
জোছনা রাতে চাঁদের পানে চাও,
নিজেকে পরি মনে হবে।
মাটির সবুজ ঘাসের পানে চাও,
নিজেকে ছাগল মনে হবে

ভেবে ছিলাম তুমি অনেক আপন
ভেবেছি পাশে থাকবে সারাজীবন
কেন তুমি ভাংলে আমার মন?
আসলেই তুমি একটা ফক্কিনির বাচ্চা

মেয়েদেরকে হাসানোর পদ্ধতি

আপনি বিভিন্ন কাজকর্মের পাশাপাশি কথা বলে মেয়েদের কেমন চদে পারেন। আমার মত মেয়েদেরকে হাসানোর সহজ পদ্ধতি টা রয়েছে সেটি হচ্ছে কথা। এই কথার মাধ্যমে আপনি যেকোন মানুষকে হাসাতে পারবেন কোন প্রকার পরিশ্রম ছাড়াই। আপনি যখন একটি মানুষকে আপনার কথার মাধ্যমে হাসাতে পারবেন তখন সে ব্যক্তি কখনোই আপনার কথায় বিরক্ত বোধ করবেন না। দীর্ঘ সময় কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করবে। অনেকেই তো এগুলো কে পুঁজি করে মেয়ে পটাতে পারে প্রেমের ক্ষেত্রে। নিচে মেয়ে পটানোর পদ্ধতি তুলে ধরা হয়েছে। নও তুমি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: