Skip to content

সাজেক হোটেল ভাড়া ও ভ্রমণ খরচ

সাজেক হোটেল ভাড়া ও ভ্রমণ খরচ

সাজেক হোটেল ভাড়া ও ভ্রমণ খরচ: বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের জনপ্রিয় হোটেল গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হোটেল হচ্ছে সাজেক হোটেল। এটি আর্মি কর্তৃক পরিচালিত হয়। অনেকেই নিজের কর্মব্যস্ত জীবনের ক্লান্তি দূর করতে ভ্রমণ করে থাকে। ভ্রমণের আগে অবশ্যই সবাইকে রাতে থাকার জন্য একটি নির্দিষ্ট হোটেল সম্পর্কে জানতে হবে। এজন্য আমরা আজকে নিয়ে এসেছি সাজেক হোটেলের ভাড়া এবং ভ্রমন খরচ সম্পর্কিত একটি পোস্ট। আমাদের এই পোস্টটিতে আমরা সাজেক হোটেলের জনপ্রতি লোকের ভাড়া থেকে শুরু করে সকল প্রকারের খরচের জিনিসটি আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করব। আপনারা যারা সাজেক হোটেলের ভাড়া ও ভ্রমণ খরচ সম্পর্কিত তথ্যগুলো খুঁজে বেড়াচ্ছেন তারা আমাদের আজকের এই পোস্ট থেকে সাজেক হোটেলের ভাড়া এবং ভ্রমণ সম্পর্কিত সকল প্রকার তথ্য সম্পর্কে জানতে পারবেন। আশা করছি আমাদের আজকের এই পোস্ট টির মাধ্যমে আপনারা উপকৃত হবেন।

বাংলাদেশের নামকরা হোটেলের মধ্যে সাজেক হোটেল অন্যতম একটি হোটেল। এই হোটেলটি রাঙ্গামাটি এলাকায় অবস্থিত।এটি আর্মি কর্তৃক পরিচালিত হয়। এই হোটেল টিতে এসি ও নন এসি সিস্টেম চালু রয়েছে। এই হোটেলটিতে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন জায়গার মানুষ তাদের কর্মব্যস্ত জীবনের ক্লান্তি দূর করার জন্য এসে থাকে। হোটেল কর্তৃপক্ষ গ্রাহকদেরকে সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা প্রদান করে থাকে। এখানে যেহেতু এসি সিস্টেম ও নন এসি সিস্টেম চালু রয়েছে সেহেতু এই হোটেলটিতে ভাড়ার ও পার্থক্য রয়েছে। গ্রাহকদের সকল সুযোগ সুবিধার কথা চিন্তা করে সাজেক ভ্যালিতে বেশ কিছু রিসোর্ট তৈরি করা হয়েছে। এই হোটেলে প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে পাহাড়ের চূড়ায় দাঁড়িয়ে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যকে অবলোকন করা।এই হোটেল এর ছাদে দাঁড়ালে মেঘ ময় আকাশটা কে হাতের মুঠোয় মনে হয়। প্রতিদিন পর্যটকরা এই হোটেল ভ্রমণ করার জন্য এসে থাকে। এই হোটেলের শান্ত সৃষ্ট পরিবেশ সবাইকে মুগ্ধ করে তোলে।

সাজেক হোটেলের ভাড়া

প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি হচ্ছে আমাদের বাংলাদেশ। এই দেশে রয়েছে বিভিন্ন রকম নদ-নদী সাগর ও পাহাড় পর্বত যা সকলকে মুগ্ধ করে তোলে। প্রতিনিয়ত বিভিন্ন রকম পর্যটক প্রকৃতির সৌন্দর্যকে অবলোকন করার জন্য এসব পাহাড়-পর্বত সাগর ভ্রমণ করে থাকে। পর্যটকদের সকল রকম সুযোগ-সুবিধা প্রদান করার জন্য সাগর বা পাহাড় পর্বতের তীরবর্তী এলাকাতে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন রকম রিসোর্ট ও হোটেল। আজকে আমরা এরকম একটি হোটেলের কথা আপনাদের মাঝে আলোচনা করব। আমাদের আজকের আলোচনাকৃত হোটেলটি হচ্ছে সাজেক হোটেল। যেটি রাঙ্গামাটির পাহার এলাকাতে গড়ে উঠেছে। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার পর্যটক পাহার পরিদর্শন ও হোটেল ভ্রমণের জন্য এসে থাকেন। এজন্য আমরা আজকে নিয়ে এসেছি সাজেক হোটেলের ভাড়া সম্পর্কিত একটি তালিকা। আমরা আমাদের এই পোস্টটিতে সাজেক হোটেলের ভাড়া সম্পর্কিত সকল ধরনের তথ্য আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করব। আপনারা আমাদের আজকের এই পোস্ট থেকে সাজেক হোটেলের ভাড়া সম্পর্কিত সকল তথ্যগুলো জেনে নিতে পারবেন। সাজেক হোটেলের ভাড়া সম্পর্কিত তালিকাটি তুলে ধরা হলো:

সাজেক ভ্যালিতে অবস্থিত হোটেল সমূহঃ

সাজেক ভ্যালিতে হোটেল অসংখ্য কিন্তু তার মধ্যে কয়েকটি হোটেলের নাম নিচে দেয়া হলো।
  • সাজেক রিসোর্ট
  • মেঘ পুঞ্জি রিসোর্ট
  • মেঘ মাচাং রিসোর্ট
  • লুসাই কটেজ
  • জুমঘর ইকো রিসোর্ট
  • রিসোর্ট সারা
  • ইমানুয়েল রিসোর্ট
  • আদিবাসীদের ঘর
  • হানিমুন কটেজ
  • নিরিবিলি রিসোর্ট
  • ছায়ানীড় রিসোর্ট
  • জীবন ত্রিপুরা কটেজ
  • সাগর ত্রিপুরা কটেজ
  • বনলতা কটেজ

সাজেক হোটেল ভ্রমণ খরচ

অনেকেই নিজের কর্মব্যস্ত জীবনের অবসাদ দূর করার জন্য বা নিজের প্রিয় মানুষটির সাথে একান্ত সময় কাটানোর জন্য সাজেক হোটেল ভ্রমণ করার ইচ্ছা পোষণ করে থাকে। এর কারণে তারা সাজেক হোটেল ভ্রমণ খরচ সম্পর্কিত তথ্যগুলো জানার জন্য অনলাইনে অনুসন্ধান করে যায়। আজকে আমরা তাদের জন্য নিয়ে এসেছি সাজেক হোটেলের ভ্রমণ সম্পর্কিত সকল তথ্য। আপনারা আমাদের আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে সাজেক হোটেলের ভ্রমণ সম্পর্কিত খরচ গুলো জানতে পারবেন। কেননা কোনো জায়গায় বা কোনো স্থানে ভ্রমণ করার জন্য প্রথমে ভ্রমণ খরচ সম্পর্কে ধারণা রাখা সকলের জরুরি। এজন্যই আমরা আজকে সাজেক হোটেলের ভ্রমণ সম্পর্কিত খরচ গুলো নিয়ে আপনাদের মাঝে হাজির হয়েছি। আমরা আমাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাতে সক্ষম হব সাজেক হোটেলের ভ্রমণ সম্পর্কিত খরচ। নিচে সাজেক হোটেলের ভ্রমণ সম্পর্কিত খরচ তুলে ধরা হলো:

সাজেক রিসোর্টঃ

এখানে অর্থাৎ সাজেক রিসোর্টে থাকার জন্য প্রত্যেকটা নাগরিককে বিশেষ করে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা গুনতে হবে প্রতি দিনের জন্য।
ফোনঃ 01859 0256 94

মেঘ মাচাংঃ 

 এছাড়া এখানে রুম ভাড়া হিসেবে প্রতি দিনের জন্য ২৫০০ টাকা থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত দিতে হয়।
ফোনঃ 01822 1688 77

মেঘ পুঞ্জি রিসোর্টঃ

এই রিসোর্টের সাধারণত চারটি রুম রয়েছে এবং রুম ভাড়া হিসেবে প্রতি দিনের জন্য গুনতে হবে ২০০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত এবং
ফোনঃ 0188 420 8060

জুমঘর রিসোর্টঃ

সাজেক ভ্যালির চার্চের খুব কাছাকাছি এবং জুমঘর রিসোর্ট সাধারণত প্রতি দিনের জন্য রুম ভাড়া হিসেবে গুনতে হয় ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকা পর্যন্ত এবং এখানে রুম বুকিং এর জন্য যোগাযোগ করুন নিচের নম্বরে।
ফোনঃ 0188 420 8060

আলো রিসোর্টঃ

এছাড়া কম খরচে থাকার জন্য এখানে বিভিন্ন মানের রুম রয়েছে এছাড়া আলো রিসোর্ট এর সাধারণ সংকেত এবং প্রতি দিনের জন্য ভাড়া পড়বে ১৫০০ থেকে ১৮০০ টাকা পর্যন্ত।
ফোনঃ 0184 1000 645

লুসাই কটেজঃ

কারণ এখানে মধ্যম মানের ভালো রিসোর্ট এবং রুম ভাড়া জন্য প্রতি দিনের জন্য গুনতে হয় ২০০০ টাকা থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত। এবং উন্নত মানের একটি রিসোর্ট।
ফোনঃ 01634 1980 05

ছায়ানীড় রিসোর্টঃ

 প্রতি দিনের জন্য ৩০০০ থেকে ৩৫০০ টাকা রুম ভাড়া হিসেবে দিতে হয়। এবং এখানে বিদ্যুৎ এর কোন ব্যবস্থা থাকলেও খাবারের সুব্যবস্থা নেই। তবে আগে থেকে জানিয়ে রাখলে খাবারের ব্যবস্থা হয়তো তারা করে দেবে।
ফোনঃ 01881 1648 64

আদিবাসী ঘরঃ

সেখানে ফ্যামিলি নিয়ে না থাকাটায় ভালো হবে সেখানে সাধারণত বন্ধুবান্ধবের সাথে রুম শেয়ার করে থাকা যেতে পারে এবং সেখানে থাকার জন্য জনপ্রতি খরচ পড়বে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: