Skip to content

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ছুটির দিন, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, ছুটির দিন

সুন্দরবন এক্সপ্রেস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে এই পোস্টে। আমরা সকলেই জানি ট্রেন ভ্রমণ সম্পর্কে। ট্রেনে যাত্রীদের সুবিধা এবং আরামদায়ক ভ্রমণের ফলে দিন দিন ট্রেনে ভ্রমণে মানুষের আগ্রহ বেড়েই চলেছে। দীর্ঘপথ ভ্রমণের জন্য সকলেই ট্রেন বেছে নিয়ে থাকেন। এই পোস্টে আমরা আলোচনা করব সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি সম্পর্কে। তাই আপনি যদি এই ট্রেনটি সংক্রান্ত তথ্য জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে দেশে থাকেন তাহলে একদম সঠিক জায়গায় এসেছে। এই পোষ্টে আমরা সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেন সংক্রান্ত সকল তথ্য দিয়ে রাখবো। আমরা চেষ্টা করব এই ট্রেনটির বিস্তারিত তথ্য দিয়ে আপনাদের সহযোগিতা করা। এখান থেকে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে এই ট্রেনটি আমাদের মধ্যে এসেছে এ যাত্রা শুরু কত সাল থেকে। এটি কোথা থেকে কোথায় যাত্রা করে থাকেন।

সেই সাথে জানতে পারবেন ট্রেনটির সময়সূচি। এছাড়াও ট্রেন টির ছুটির দিন সম্পর্কে জানতে পারবেন। বিরোধী স্টেশন গুলো কোথায় কোথায়। ভ্রমণার্থীদের জন্য বিরতি স্টেশন সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সর্বোপরি জানতে পারবেন এটির ভাড়া সম্পর্কে। এছাড়াও ট্রেনটিতে যাত্রীদের কি কি সুবিধা দিয়ে থাকে। পাশাপাশি অসুবিধার কথা গুলো তুলে ধরবো। এই সকল বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি এই পোস্টটি পড়লে আপনাকে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি সম্পর্কে আর কোন পোস্ট করতে হবে না। এটি বলার কারণ চেষ্টা করেছি যাবতীয় বিষয় আপনাদের সামনে উপস্থাপন করার।

সুতরাং যারা এটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তারা অবশ্যই পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। আমরা আশা রাখি সকল তথ্য দিয়ে আপনাদের সহযোগিতা করতে পারবো।

সুন্দরবন এক্সপ্রেস

এইটাই হচ্ছে বাংলাদেশের অধীনে চলাচল কৃত একটি ট্রেন অর্থাৎ আন্তঃনগর ট্রেন। এই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটির জনপ্রিয়তা খুবেই। খুলনা এবং ঢাকা শহরের মাঝামাঝি চলাচলকারি ট্রেনটি হচ্ছে এটি। এইট এইটি 2003 সালের 17 ই আগস্ট থেকে যাত্রী সেবা দিয়ে আসছেন। বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলে চলাচল করে থাকেন। এখন কথা বলব এটির যাত্রাপথ সম্পর্কে। এটি যাত্রা শুরু হয় কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে এবং শেষ হয় খুলনা রেলস্টেশন থেকে। ৪৪৯ কিলোমিটার প্রায় এই পথ অতিক্রম করে ট্রেনটি।

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

ভ্রমণের জন্য সময়সূচী সম্পর্কে জানা খুবই জরুরী। তাই যারা এই ট্রেনটিতে ভ্রমণ করার কথা ভাবছেন, তারা অবশ্যই এখান থেকে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জেনে নিবেন। ট্রেন ভ্রমণের বিষয়গুলো আপনারা সকলেই জানেন। নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী চলাচল করেন। তাই সময় মত স্টেশনে পৌঁছাতে না পারলে আপনি যাত্রা করতে ব্যর্থ হবেন। আমরা আপনাদের জন্য এই ট্রেনটি সময়সূচী নিয়ে উপস্থিত হয়েছি। আমরা আপনাদের সুবিধার কথা চিন্তা করে সময়সূচী টি ছক বন্ধ করেছি। এতে করে আপনি খুব সহজেই জানতে পারবেন এই ট্রেনটি ঢাকা থেকে কখন ছাড়ে এবং কখন গিয়ে পৌঁছায় খুলনায়। কিভাবে খুলনা থেকে কখন ছাড়া হয় এবং ঢাকায় কখন এসে পৌঁছায়। অর্থাৎ ছাড়া এবং পৌছানোর সময় সূচি নিচে দেওয়া হল।

স্টেশনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
ঢাকা টু খুলনা বুধবার ০৮ঃ১৫ ১৭ঃ৪০
খুলনা টু ঢাকা শুক্রবার ২২ঃ১৫ ০৭ঃ০০

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ছুটির দিন

বাংলাদেশ চলাচল কৃত ট্রেনগুলোর প্রায় সকলেরই রয়েছে সপ্তাহিক ছুটি। এই ছুটির দিনে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখেন। এজন্য আপনি যদি এই দিনটিতে চলাচল করতে চান তাহলে এই দিনটি ব্যতীত করতে হবে। আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে এই ট্রেনটি ছুটির দিন কি বার। ট্রেনে ভ্রমণের জন্য ছুটির দিন সম্পর্কে জানা প্রয়োজন রয়েছে। এটি না জেনে অনেকেই স্টেশনে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হয়। এই ট্রেনের ছুটির দিন সম্পর্কে আমরা সময়সূচী তালিকা দিয়ে রেখেছি । আপনি একটু উপরে তুললে দেখতে পারছেন।

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন  সময়সূচী

এই ট্রেনটি ঢাকা টু খুলনা এবং খুলনা টু ঢাকা এই দীর্ঘ পথ যাত্রা করেন। দীর্ঘ পথ যাত্রায় স্টেশনে বিরতি রাখেন। এই স্টেশনগুলোকে মূলত বিরতি স্টেশন বলা হয়। আর এই বিরতি স্টেশন সময়সূচী দিয়ে আজকে আমরা উপস্থিত হয়েছি এখানে। আমরা দীর্ঘদিন অনুসন্ধান এর ফলে এই তালিকাটি সুন্দর এবং সঠিকভাবে করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করি এখান থেকে আপনি সঠিক তথ্য পাবেন। এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দেওয়ার জন্য বিরতি স্টেশন সময়সূচী সম্পর্কে জানা জরুরী। এটি না জানলে আপনার ভ্রমণ হবে অলস। তাই বিরতি স্টেশন সময়সূচী সম্পর্কে জানুন এবং আনন্দপূর্ণ ভ্রমণ করুন।

বিরতি স্টেশন নাম খুলনা থেকে (৭২৫) ঢাকা থেকে (৭২৬)
দৌলতপুর ২২ঃ২৫ ১৭ঃ১৯
নওয়াপাড়া ২২ঃ৪৯ ১৬ঃ৫২
যশোর ২৩ঃ২০ ১৬ঃ২০
কোটচাদপুর ২৪ঃ০০ ১৫ঃ৪২
চুয়াডাঙ্গা ০০ঃ৫৩ ১৪ঃ৪১
আলমডাঙ্গা ০১ঃ১৩ ১৪ঃ২০
পোড়াদহ ০১ঃ৩২ ১৪ঃ০১
ভেড়ামারা ০১ঃ৫৩ ১৩ঃ৪০
ঈশ্বরদী ০২ঃ১৫ ১৩ঃ০০
চাট্মোহর ০৩ঃ০০ ১২ঃ২৪
বড়াল্ব্রীজ ০৩ঃ১৫ ১২ঃ০৮
উল্লাপাড়া ০৩ঃ৩৬ ১১ঃ৪৬
জামতেল ০৩ঃ৫১ ১১ঃ৩২
শ,এম,ম,আলী ০৪ঃ০০ ১১ঃ২১
বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব ০৪ঃ৪২ ১০ঃ৪৫
জয়দেবপুর ০৫ঃ৫৭ ০৯ঃ১২
বিমানবন্দর ০৬ঃ২৫ ০৮ঃ৪২

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা তৈরি করতে দীর্ঘদিন পরিশ্রম করতে হয়েছে। কারণ এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দেন সুন্দরবন এক্সপ্রেস। অনেকগুলো স্টেশনে বিরতি রাখেন। এর ফলে দেখা যায় একেক জন একেক স্টেশনে ওঠেন এবং নেমে যান। তাই আমরা বিস্তারিতভাবে ভাড়ার তালিকা তৈরি করেছি। অর্থাৎ আপনি যদি একই স্টেশন থেকে অপর স্টেশন যেতে চান তাহলে আপনার ভাড়া কত হবে এটিও জানতে পারবেন। এ কারণেই ভাড়ার তালিকা টি একটু বড় হয়েছে। আপনি কোন স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করেছেন এটি বেছে নিয়ে আপনার ভাড়ার তালিকা দেখুন।

স্টেশনের নাম শোভন শোভন চেয়ার প্রথম সিট এসি সিট
জয়দেবপুর ৩৫ ৪০ ৮০ ৯০
মির্জাপুর ৬৫ ৮০ ১০৫ ১৩০
টাঙ্গাইল ৯০ ১০৫ ১৪০ ১৭৫
বি-বি-পূর্ব ১০৫ ১২৫ ১৬৫ ২১০
জামতলী ১৮০ ২১৫ ২৮৫ ৩৫৫
উল্লাপাড়া ১৯০ ২২৫ ৩০০ ৩৭৫
বড়াল ব্রিজ ২০৫ ২৪৫ ৩২৫ ৩৭৫
চাটমোহর ২১০ ২৫০ ৩৩৫ ৪০৫
ঈশ্বরদী ২২৫ ২২৫ ২৭০ ৪২৫
ভেড়ামারা ২৬৫ ২৭০ ৩৩৫ ৪৫০
মিরপুর ২৭০ ৩২০ ৪২৫ ৫৩০
পোড়াদহ ২৮০ ৩২৫ ৪৩৫ ৫৪০
আলমডাঙ্গা ২৯০ ৩৩৫ ৪৪৫ ৫৫৫
চুয়াডাঙ্গা ৩০০ ৩৪৫ ৪৬০ ৫৭৫
কোটচাঁদপুর ৩৩৫ ৩৬০ ৪৮০ ৬০০
যশোর ৩৫০ ৪২০ ৫৬০ ৭০০
খুলনা ৩৯০ ৪৬৫ ৬২০ ৭৭৫

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: