Skip to content

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন করার নিয়ম

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন করার নিয়ম: আমরা অনেক সময় বিদেশ থেকে মোবাইল নিয়ে আসি। এটা হতে পারে নিজেরাই নিয়ে আসি আবার অন্য কারো মাধ্যমে নিয়ে আসি, যাই হোক না কেন এই ফোনগুলো মূলত আনঅফিসিয়াল হিসেবে ব্যবহার করতে হয় আমাদের। তবে এই ফোনগুলো নিবন্ধন করার সুযোগ রয়েছে কিনা থাকলে আমরা কিভাবে নিবেদন করতে পারি এই প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের আজকের আলোচনার সাথে থাকতে হবে আপনাকে। আমরা আপনাদেরকে বিদেশ থেকে আনা মোবাইল ফোনগুলো নিবন্ধন করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানাবো। সুতরাং আপনারা যারা বিদেশ থেকে আনা ফোনগুলো ব্যবহার করছেন তারা আমাদের সাথে থেকে এই ফোনগুলো নিবন্ধন করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন।

ফোন নিবন্ধনের নিয়ম এর পাশাপাশি এর সুবিধা কি কেন আমরা ফোনগুলো নিবন্ধন করব এ বিষয়ে সম্পর্কে অবশ্যই জানার প্রয়োজন রয়েছে। তাইতো আজকের আলোচনার মাধ্যমে ফণীবন্ধনের বিষয় সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য উপস্থাপন করব আপনাদের মাঝে। আশা করছি আমাদের আজকের আলোচনার সাথে থেকে ফোন নিবন্ধন করার উপকারিতা সহ সমস্ত বিষয়ে সম্পর্কে জানতে পারবেন অবশ্যই এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় একটি ফোন ব্যবহার করার জন্য। এর কারণ বর্তমান সময়ে একটি ফোন শুধুমাত্র কথা বলার জন্য ব্যবহার করা হয় না এক্ষেত্রে ব্যক্তিগত অনেক তথ্য বিভিন্নভাবে ব্যাংকিং সম্পর্কিত বিষয়গুলোর সাথে যুক্ত করা হয়ে থাকে নিজের ফোন তাই অবশ্যই একটি ফোন ব্যবহার করার পূর্বে নিবন্ধনের বিষয়টি কথাটা গুরুত্বপূর্ণ এ বিষয়ে সম্পর্কে জানতে হবে আমাদের।

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন করার নিয়ম

অনেক ক্ষেত্রেই ফ্যামিলি মেম্বার কিংবা আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে কেউ বাইরের দেশে থাকলে আমরা তাদেরকে ফোন আনার জন্য বলে থাকি। এছাড়াও অনেকেই দেশের বাইরে থেকে উপহার হিসেবে মোবাইল ফোন পাঠিয়ে থাকেন আমাদের। তবে এই ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিবন্ধন করার প্রয়োজন রয়েছে কিনা এছাড়া আপনি নিবন্ধন করতে চাইলে কিভাবে করবেন এ বিষয় সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানাবো আপনাদের। আশা করছি এখান থেকে নিবন্ধন করার প্রক্রিয়া অর্থাৎ নিয়ম সম্পর্কে জেনে উপকৃত হতে পারবেন।

ধাপ-১: www.neir.btrc.gov.bd লিংকে গিয়ে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন করতে হবে।

ধাপ-২: পোর্টালের স্পেশাল রেজিস্ট্রেশন সেকশনে গিয়ে মোবাইল সেটের আইএমইআই নম্বরটি দিতে হবে।

ধাপ-৩: প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট’র ছবি বা স্ক্যান কপি (যেমন: ভিসা, ইমিগ্রেশন তথ্যাদি, কেনার রশিদ ইত্যাদি) আপলোড করতে হবে এবং সাবমিট বাটনটি প্রেস করতে হবে।

ধাপ-৪: সেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। মোবাইল ফোনসেটটি বৈধ না হলে এসএমএস’র মাধ্যমে গ্রাহককে জানিয়ে পরীক্ষাকালে নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় পার হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মোবাইল অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে গিয়েও এই সেবা গ্রহণ করা যাবে।

ফোন নিবন্ধন করার গুরুত্ব

কেন আমরা আনঅফিসিয়াল ফোন নিবন্ধন করব। কি জন্য নিবন্ধন করা উচিত। আমরা যারা টেক্সট সম্পর্কিত বিষয়গুলো সম্পর্কে জেনে থাকি তারা অবশ্যই জানবো বিটিআরসি থেকে এই বিষয়টির প্রতি লক্ষ্য রাখা হয়েছে। এবং তারা আপডেট জানিয়েছে নিবন্ধন ব্যতীত কোন গুলোর নেটওয়ার্ক কানেক্টিভিটি বন্ধ করে দেওয়া হবে। অর্থাৎ আনে অফিসিয়াল ফোন গুলোতে কিংবা নিবন্ধন ব্যতীত কোনগুলোতে আপনি সিম ব্যবহার করতে পারবেন না। সম্পূর্ণভাবে এই প্রক্রিয়াটি এখনো কার্যক্রম হয়নি কাজ চলছে হয়তো খুব তাড়াতাড়ি এডি করা হবে তাই অবশ্যই বিদেশ থেকে আনা ফোনগুলো নিবন্ধন করার প্রয়োজন রয়েছে।

ব্যবহৃত মোবাইল মোবাইল ফোন সেটের বর্তমান অবস্থা যাচাই প্রক্রিয়া

ব্যবহৃত মোবাইল ফোনসেটের বর্তমান অবস্থা জানতে হলে:

ধাপ-১: মোবাইল ফোনসেট থেকে *১৬১৬১# নম্বরে ডায়াল করুন।

ধাপ-২: স্ক্রিনে প্রদর্শিত অপশন থেকে স্ট্যাটাস চেক অপশন সিলেক্ট করুন।

ধাপ-৩: অটোমেটিক বক্স এলে মোবাইল ফোন সেটের ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বরটি লিখে পাঠিয়ে দিন।

ধাপ-৪: হ্যাঁ বা না অপশনের একটি অটোমেটিক বক্স এলে হ্যাঁ সিলেক্ট করে নিশ্চিত করুন।

ধাপ-৫: ফিরতি মেসেজের মাধ্যমে ব্যবহৃত মোবাইল মোবাইল ফোন সেটের হালনাগাদ অবস্থা জানানো হবে। এছাড়া neir.btrc.gov.bd লিংকের মাধ্যমে বিদ্যমান সিটিজেন পোর্টাল বা মোবাইল অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে গিয়েও এই সেবা গ্রহণ করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: