শিক্ষা ও জীবন

সমাস কাকে বলে ? সমাস কত প্রকার ও কি কি

প্রিয় পাঠক বন্ধু বাংলা ব্যাকরণ এর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা এ আপনাকে স্বাগতম। আপনারা সকলেই জানেন বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর সহজ আলোচনা নিয়ে আসি আপনাদের মাঝে। তারই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আজকের আলোচনায় সমাস সম্পর্কিত বিস্তারিত সকল তথ্য প্রদান করা হয়েছে আজকে। বাংলা ব্যাকরণ এর গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায় হচ্ছে সমাজ আর এই সমাজকে সহজভাবে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করার জন্য আজকের আলোচনা।

সুতরাং শিক্ষার্থী ভাই ও বোনদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলছি অবশ্যই আপনারা আজকের পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। এক্ষেত্রে আপনি সহজভাবে সমাজ সম্পর্কিত সকল গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে পারবেন। আজকের আলোচনায় সমাস কাকে বলে অর্থাৎ সমাস এর সংখ্যা এছাড়াও সমাসের প্রকারভেদ সমাস কত প্রকার ও কি কি এই বিষয় সর্ম্পকে জানতে পারবেন। এর বাইরে উদাহরণ দিয়ে বোঝানো হয়েছে সমাসের প্রকারভেদ গুলো আপনি সহজেই চিনতে পারবেন সমাস অর্থাৎ বুঝতেই পারছেন আজকের আলোচনা কতটা গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।

সমাস কাকে বলে ?

সমাস সম্পর্কিত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করা হবে এখানে। অনেকেই সমাস সম্পর্কে জানেন না এক্ষেত্রে সমাস এর সংখ্যা প্রদান করা হবে এখানে। শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যাকরণ এর এই অধ্যায়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এর কারণ বোর্ড প্রশ্ন সহ শিক্ষা জীবনের শেষ এবং চাকরি জীবনের শুরুতে অর্থাৎ চাকরির ক্ষেত্রে সমাজ থেকে প্রশ্ন লক্ষ করা যায় অনেক সময়। তাইতো নিচে সমাস এর সংখ্যা প্রদান করছি পাশাপাশি এর প্রকারভেদ উদাহরণসহ উপস্থাপন করেছি।

সমাস: সমাস সংস্কৃত শব্দ। এর অর্থ সংক্ষেপ, মিলন, একাধিক পদের একপদীকরণ। অর্থ সম্বন্ধ আছে এমন একাধিক শব্দের একসঙ্গে যুক্ত হয়ে একটি নতুন শব্দ গঠনের প্রক্রিয়াকে সমাস বলে।

সমাস কত প্রকার ও কি কি

আপনাদের প্রশ্নের উত্তর এর পাশাপাশি বোঝার সুবিধার্থে উদাহরণসহ কিছু তথ্য প্রদান করেছি অবশ্যই আপনি পূর্ণাঙ্গ জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন আজকের আলোচনা থেকে। সমাজ-সংস্কৃতি তো গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো অর্থাৎ সমাস এর প্রকারভেদ সমাস কি কি এবিষয়গুলো নিচে তুলে ধরা হলো।

সমাসের প্রকারভেদ / শ্রেণীবিভাগ

সমাস ৬ প্রকার। যথাঃ

  • দ্বন্দ্ব
  • দ্বিগু
  • কর্মধারয়
  • তৎপুরুষ
  • অভ্যয়ীভাব ও
  • বহুব্রীহি

দ্বন্দ্ব সমাসের প্রকারভেদ / শ্রেণীবিভাগ

দ্বন্দ্ব সমাস নানা প্রকার হতে পারে। কয়েকটি হলো –

  • মিলনার্থক দ্বন্দ্ব (মাসি ও পিসি = মাসি-পিসি)
  • সমার্থক দ্বন্দ্ব (হাট ও বাজার = হাট- বাজার)
  • বিরোধার্থক দ্বন্দ্ব ( দা ও কুমড়া = দা -কুমড়া)
  • অলুক দ্বন্দ্ব ( দেশে ও বিদেশে = দেশে-বিদেশে)
  • ইত্যাদি অর্থে দ্বন্দ্ব (কাপড় ও চোপড় = কাপড়-চোপড়)
  • বহুপদী দ্বন্দ্ব (বই, খাতা ও কলম = বই- খাতা- কলম)

কর্মধারয় সমাসের প্রকারভেদ / শ্রেণীবিভাগ

কর্মধারয় কয়েক প্রকার। যেমন –

  • মধ্যপদলোপী কর্মধারয় (সিংহ চিহ্নিত আসন – সিংহাসন)
  • উপমান কর্মধারয়(তুষারের ন্যায় শুভ্র- তুষারশুভ্র)
  • উপমিত কর্মধারায় (মুখ চন্দ্রের ন্যায় – চন্দ্রমুখ)
  • রূপক কর্মধারয় ( মন রূপ মাঝি – মনমাঝি)
Back to top button
Close